পার্থ বড়ুয়ার প্রথম একক অ্যালবাম ‘মুখোশ’

পার্থ বড়ুয়া

সোলস ব্যান্ড থেকে পার্থ বড়ুয়ার অনেক গান  শুনেছেন দর্শক। দীর্ঘদিনের ক্যারিয়ারে কোনো একক অ্যালবাম ছিল না ব্যান্ডদল সোলসের কান্ডারি সঙ্গীতশিল্পী পার্থ বড়ুয়ার। এ পর্যন্ত যেসব গান প্রকাশ হয়েছে সেগুলো হয় মিক্সড অ্যালবামের, নয়তো ব্যান্ডদলের। তবে এবার সে ইতিহাস ভাঙলেন। প্রথমবার প্রকাশ করলেন নিজের একক অ্যালবাম। নাম ‘মুখোশ’।

২৯ মে মধ্যরাতে প্রকাশ হয় পার্থ বড়ুয়ার প্রথম একক অ্যালবাম ‘মুখোশ’-এর প্রথম গান ‘শহর ও মেঘদল’।অ্যালবামটির পৃষ্ঠপোষক হিসেবে আছে আইপিডিসি ফিন্যান্স। প্রতিষ্ঠানটির ফেসবুক পেজে গানটির ভিডিও উন্মুক্ত  হয়।

এ প্রসঙ্গ পার্থ বড়ুয়া বলেন, “এটাই আমার ক্যারিয়ারের প্রথম একক অ্যালবাম। এর আগে যেগুলো বের হয়েছে, সেগুলো একক অ্যালবাম নয়। বিভিন্ন গান যোগ-বিয়োগ করে ‘বেস্ট অব পার্থ বড়ুয়া’ ধরনের অ্যালবাম বাজারে এসেছে। সুতরাং এটাই আমার প্রথম একক অ্যালবাম।”

দীর্ঘদিন ধরেই তার এই অ্যালবামটি সংবাদের শিরোনাম হয়ে আসছিল। কিন্তু কবে নাগাদ সেটি প্রকাশ করবেন সেটা নিশ্চিত করে কখনোই বলেননি এই জনপ্রিয় গায়ক। বরাবরই সোলসের কাজকর্ম নিয়েই ব্যস্ত থেকেছেন। মাঝে নাটকে অভিনয়েও সময় দিয়েছেন। সবকিছু মিলিয়ে অ্যালবামের কাজ শেষ করতে পারেননি বলেও ধারণা করা হয়। অবশেষে লকডাউনের মধ্যে সেটির কাজ শেষ করে ঈদ উপলক্ষে সেটি প্রকাশ করলেন এ গায়ক।https://www.buddhistnews24.com/

আইপিডিসি ফিন্যান্স নামে একটি প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পেজে গানটির ভিডিও উন্মুক্ত করা হয়েছে। গানটি প্রসঙ্গে পার্থ বড়ুয়া বলেন, “এবারের ঈদ আমাদের সবার জন্যই একেবারে ভিন্নরকম। সবাই ঘরবন্দি। এরমধ্যে আইপিডিসি আয়োজন করেছিল ‘জাগো উচ্ছ্বাসে ঈদ আনন্দে’ নামের ফেসবুক অনুষ্ঠানের। এর মাধ্যমেই আমার প্রথম অ্যালবাম প্রকাশের ঘোষণাটা আসে। এতে পাঁচটি বিষয়ভিত্তিক গান আছে। যার প্রথমটি ‘শহর ও মেঘদল’। ক্রমান্বয়ে বাকি গানগুলোও প্রকাশ হবে।’’

মুখোশ’-এর অন্য গানগুলোর শিরোনাম এমন- ‘নস্টালজিয়া’, ‘টং এর দোকান’, ‘বৃষ্টির গান’ ও ‘মুখোশ’। সবগুলো গান লিখেছেন রানা। সুর-সংগীত পরিচালনা করেছেন পার্থ বড়ুয়া নিজেই।

বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতের এক উজ্জল নাম পার্থ বড়ুয়া।  ১৯৮৮ সালে আইয়ুব বাচ্চুর হাত ধরে পার্থ বড়ুয়ার আগমন ঘটে ব্যান্ড সোলস-এ। ব্যান্ডটিতে যোগদানের বছর কয়েক পরই এর মূল গায়ক হয়ে উঠেন পার্থ।

https://www.prothomalo.com/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here