করোনাকালীন মানসিক স্বাস্থ্যঝুঁকি ও করণীয়

0
290

সকালটায় ঘুম থেকে উঠার পর, হাতের কাছে মোবাইল এ ঘুরে দেখা হয়, কতজন মানুষ আক্রান্ত হলো আর কতই বা মানুষের মৃত্যু হলো করোনা মহামারীতে। শিশু থাকা বৃদ্ধ দুপুরের সংবাদ পর স্বাস্থ্য বুলেটিন এর অপেক্ষায় থাকে, আজকে যেন আক্রান্ত আর মৃত্যুটা কম হয়।
এ যেন এক কঠিন নিয়ামক, করোনা ভাইরাস মহামারিতে রোগ ও মৃত্যুতে বিপর্যস্ত মানুষ বিচ্ছিন্নতা, দারিদ্র্য ও উদ্বেগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে মানসিক রোগ সংক্রান্ত সমস্যা বাড়ছে প্রতিনিয়তো।
‘কোভিড -১৯’ এর মানসিক আঘাত বা প্রভাব হতে পারে দীর্ঘমেয়াদি। এই করোনা কালীন সময়ে সমগ্র বিশ্বে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে বিষন্নতা, আতংক, হতবিহ্বলতার মত রোগে।

করোনায় মানসিক স্বাস্থ্য ঝুঁকির কারণ :
১. প্রিয়জনের মৃত্যুজনিত এবং মৃত্যু পরবর্তী সামাজিক অনুষ্ঠান পালন করতে না পারা জনিত অবসাদ।
২. বেকারত্ব ও অর্থনৈতিক ক্ষতিগ্রস্ততা
৩. সবচেয়ে বড় ভয়, ভাইরাস জনিত রোগে আক্রান্ত হওয়া
৪. কারো কারো মধ্যে – অযথাই দূর্দশাগ্রস্থ ঘটনা মনে আসা, দুঃস্বপ্ন দেখা, চিন্তা ও মেজাজে পরিবর্তন আসা এবং সহজেই আৎকে বা চমকে উঠা।
৫. অতিরিক্ত মানসিক চাপ

প্রতিরোধে করণীয়-
১. সুষম খাদ্য গ্রহণ, পর্যাপ্ত ঘুম (৬-৮ ঘন্টা) এবং হালকা ব্যায়াম।
২. শুধুমাত্র আস্থাভাজন বন্ধু এবং আত্মীয়ের সাথে কথা বলা, যোগাযোগ রক্ষা করা ও পরামর্শ নেওয়া
৩. শুধুমাত্র সঠিক ও বিজ্ঞানসম্মত তথ্য গ্রহন করা। গুজব এড়িয়ে চলা উচিত।
৪. ধূমপান, মদ্যপান এবং নেশাজাতীয় দ্রব্য সম্পূর্ণ এড়িয়ে চলা।

পরিশেষে আমাদের সবারই মনে রাখতে হবে করোনাকালের এই সময়টা সাময়িক; এই পরিস্থিতি আমাদের সবার চেষ্টায় হয়তো নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে। নিশ্চয়ই আমরা সবাই আবার স্বাভাবিক জীবনে দ্রুত ফিরে আসবো।

https://www.buddhistnews24.com/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here